রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৫:৫৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
গিলানী চা বাগান সহ বিভিন্ন চা বাগানে দূর্গা পূজা উপলক্ষ্যে চলছে প্রতিমায় রংতুলির কাজ অবাঞ্ছিত ওষুধের স্ট্রিপ দিয়ে এলাকায় দুর্গা প্রতিমা তৈরী করলেন কলকাতার এক গৃহবধূ। কিশোর সংঘ পুজা উদযাপন পরিষদ এর গৌরব ও ঐতিহ্যের ৬ যুগ পূর্তি লামা কেন্দ্রীয় গীতা শিক্ষা নিকেতনের দীর্ঘ ২২ বছর পর নতুন কমিটি গঠিত দীর্ঘ আইনি লড়াইয়ের পর পাকিস্তানে ১২শ বছরের প্রাচীন মন্দির দখলমুক্ত প্রতিমা ভাংচুরের অভিযোগে পিরোজপুরে ৪ কিশোর গ্রেপ্তার রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলার লংগদু উপজেলার মাইনীতে সনাতনী শিক্ষার্থীদের মাঝে শ্রীমদ্ভগবদগীতা যথাযথ দান নড়াইলে হিন্দু বাড়ীতে আগুন দেওয়া যুবক রোমান মোল্লা রিমান্ডে বাগীশিক মানিকছড়ি উপজেলা সংসদের এি -বার্ষিক সম্মেলন সম্পূর্ণ নড়াইলে সাহাপাড়ায় হামলার পাঁচজনকে গ্রেপ্তার

গায়িকা লতা মঙ্গেশকরের প্রয়াণে ৭দিনের অশৌচ পশ্চিমবঙ্গের ছেলে

Spread the love
আন্তর্জাতিক ডেস্কঃসুজন চক্রবর্তীঃ কিংবদন্তি গায়িকা লতা মঙ্গেশকরের প্রয়াণে মাতৃহারা হয়েছে সুরের জগৎ। গত রবিবার বিদায় নিয়েছেন ভারতের জীবন্ত সরস্বতী। চোখের জলে ভেসেছে গোটা দেশ। সুর সম্রাজ্ঞীর কালজয়ী সব গান বাজিয়ে তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন জনসাধারণ। এর মাঝে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের হাওড়ার এক লতা মঙ্গেশকরের ভক্ত যা করলেন তা দেখে সবাই অবাক। হাওড়ার জগৎবল্লভপুর এলাকার মাজুর বাসিন্দা অমর বিলুই। কিংবদন্তি গায়িকা লতা মঙ্গেশকরের প্রয়াণে ৭দিনের অশৌচ পালন করেছেন তিনি। তিনিও যে মাতৃহারা হয়েছেন। লতা জিকে নিজের মা হিসেবে সমস্ত নিয়মকানুন পালন করা তাঁর কর্তব‍্য বলে মনে করেন তিনি। বেশ কয়েক বছর পূর্বে তিনি জন্মদাত্রী মাকে হারান অমর বিলুই। তারপর থেকে লতা মঙ্গেশকরকেই মা হিসেবে মানেন তিনি। আসলে ছোট থেকে তিনি গান বিশেষ করে সুর সম্রাজ্ঞীর গানের ভক্ত। নিজের টেলারিং শপেও টাঙিয়েছেন লতা জির ছবি। বয়স ৫৫ এর অমর বালুই সাংবাদিকদের জানান, মা মারা যাওয়ার পর থেকে লতার গান শুনেই বড় হয়েছেন তিনি। গায়িকাকেই বসিয়েছেন মায়ের আসনে। তাই সমস্ত নিয়ম মেনে লতা মায়ের পারলৌকিক  কাজ করছেন তিনি অশৌচ পালনের পর বৃহস্পতিবার ঘাট কাজ করেছেন। শুক্রবার নিয়ম মেনে করছেন শ্রাদ্ধের কাজ। তারপর থাকছে নিয়মভঙ্গের অনুষ্ঠানও। তার জন‍্য নিজের বাড়িতে প‍্যান্ডেল করেছেন অমর বিন্দুই। সেখানে বাজছে সুর সম্রাজ্ঞীর গান। এই উপলক্ষে ২০০ জন অতিথিকে ও খাওয়াবেন বলে জানিয়েছেন অমর বিন্দুই।
 
 
 
 
 
 



আমাদের ফেসবুক পেইজ