শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১, ০৩:৩২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
এমপির বিরুদ্ধে পত্রিকায় প্রতিবেদনে প্রকাশকের ঘরবাড়ী,পত্রিকা অফিস সহ হিন্দুদের বাসা-বাড়ি ভাঙচুর ধামরাই ইসলামপুর বহুমুখী মৎস্য আড়তদার সমিতির সাবেক সাঃ সম্পাদক নারায়ণ রাজবংশীর পরলোকগমন চুক্তির বাকি ভ্যাকসিন দ্রুত পেয়ে যাবে বাংলাদেশ: দোরাইস্বামী জামিনে ছাড়া পেয়ে ফের হামলার হুমকি গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে ৮৩ কেজি ওজনের কষ্টি পাথরের বিষ্ণুমূর্তি উদ্ধার ইসলাম না মানলে ছাড়তে হবে দেশ ! বাংলাদেশে মৌলবাদীদের হুমকির শিকার হিন্দু পরিবার ঠাকুরগাঁওয়ে ৩০ কেজি ওজনের বিষ্ণুমূর্তি উদ্ধার সাতক্ষীরা হিন্দু নাবালিকা ছাত্রী অপহরণকারী প্রধান শিক্ষক শামীম আহমেদ গ্রেফতার বিচার দেওয়ায় হিন্দু পরিবারের উপর সশস্ত্র হামলা সুনামগঞ্জে হিন্দু পরিবারের ওপর হামলা যুবক বৃদ্ধ,নারীসহ আহত ৮

তুলা রাশির প্রকৃতি ও বাৎসরিক রাশিফল – ২০২০, পন্ডিত শ্রী মিঠুন আচার্য্য

Spread the love

##দৈহিক গঠন::-

মধ্যমকায়,কৃষ্ণবর্ণ,সুন্দর মুখশ্রী ও শোভন চক্ষুর্দ্বয়।

##স্বরূপ::-

চর ও বায়ুরাশি,সমধাতু, রজোগুনী, পুরুষকারক, অধিপতি শুক্র, কালপুরুষের অঙ্গ বস্তি শীর্ষোদয়।

##তুলারাশির বৈশিষ্ট্য::-

রাশি চক্রের সপ্তমরাশি তুলা। তার প্রতীক তৌলদন্ড (দাড়িপাল্লা)। তুলার অধিপতি শুক্র। আবার তুলার অষ্টমস্থ বৃষরাশির অধিপতিও শুক্র। পার্থিব ভোগ সুখের কারক এই শুক্র। কিন্তু মনে রাখতে হবে তৌলদন্ডে মেপে নেওয়ার কথা অর্থাৎ জীবনের মাপকাঠির যেন এদিক-ওদিক না হয়। তুলার দ্বাদশ রাশি কন্যা ও দ্বিতীয় রাশি বৃশ্চিক। বুধ বোধন শক্তির কারক ও মঙ্গল দৈহিক শক্তি ও সাহসের কারক। শুক্রকে দৈত্যগুরু বলা হয় কারণ সাংসারিক ব্যাপারে সর্ববিদ্যার কারক এই শুক্র। শুক্র প্রেম,ভালবাসা ও পার্থিব ব্যাপারে আসক্তির কারক। বুধ, শনি (চতুর্থপতি, পঞ্চমপতি – বিদ্যা ও বুদ্ধি), চন্দ্র (তুলার কর্মপতি) ও রবি সহায়ক হলে শুক্রের শক্তি লোকহিতার্থে,বৈজ্ঞানিক কার্যকলাপে উন্নতির বিশেষ সহায়ক হতে পারে।
তুলারাশির জাতক-জাতিকার বিচার-বিশ্লেষণের ও লোকচরিত্র বোঝবার ক্ষমতাও রয়েছে। চিত্রা, স্বাতী ও বিশাখা এই তিনটি নক্ষত্রের সমবায়ে এই রাশি। চিত্রার মধ্যে রয়েছে শিল্পীর গুণ ও লোকরঞ্জক ক্ষমতা। চিত্রার জাতকের, বুধ অনুকূল থাকলে কল্পনা-কুশলতার বৈশিষ্ট্য গুণও রয়েছে। স্বাতীর মধ্যে রয়েছে চিন্তার গভীরতা ও অন্যকে আকর্ষণ করার ক্ষমতা ধীরস্থির ভাবে নিজের দৃষ্টিতে স্বাতীর জাতক অন্যের অন্তরকে বুঝতে পারেন। সৃষ্টিধর্মী কাজেও বিচিত্রতার আভাস। সৃষ্টিধর্মী কাজ ও বিচার বিবেচনার কাজে তুলার জাতকের বিশেষ আগ্রহ থাকে। বিচারক, আইনজীবি, শিল্পী ও চিন্তাবিদদের ক্ষমতা রয়েছে তুলার জাতকের মধ্যে। স্পষ্টবাদিতা ও ন্যায়নিষ্ঠা অনেক সময় তাদের সাধারণ স্বার্থসর্বস্বদের কাছে অপ্রিয় করে তুলতে পারে। প্রেম-ভালবাসার সঙ্গে ত্যাগ স্বীকার তাদের বিশেষ গুণ। অবশ্য শনি ও শুক্র জন্মকালে বিরূপ থাকলে তুলার জাতক বিপথগামী হতে পারে।
আনন্দের নেশা প্রবল। অশান্তি ও বিশৃঙ্খলা এড়াতে জাতক ন্যায়সঙ্গত মত স্থাপনে পশ্চাৎপদ হবে না। পরিশ্রমী ও কষ্টসহিষ্ণু। প্রেম ও ভালবাসার মূর্তপ্রতীক। তুলারাশির জাতক সব কাজ নিখুঁতভাবে করতে চাইবে। ভোগবিলাসে জাতকের সুরুচি প্রকাশ পাবে। সুখ ও দুঃখকে সমানভাবে গ্রহণ করে থাকে। সামাজিক ব্যবহার অত্যন্ত মধুর। নিজের সাধনার পথে অবিচল থেকে তার সুষ্ঠ রূপায়ণে সচেষ্ট হবে। আত্মবিশ্বাস জাতকের মধ্যে খুব বেশী থাকবে। তুলারাশির চরিত্রের দৃঢ়তা দেখাবার মত। সবার সঙ্গে মিশতে পটু। ভবিষ্যৎ ঘটনার ছায়া অনেক সময় জাতকের মনে অনেক আগে থেকেই রেখাপাত করে। জাতকের চরিত্র বাইরে থেকে সম্যক বোঝা যাবে না। দায়িত্ববোধ প্রবল। প্রীতির পাত্রের জন্য কোন ত্যাগ স্বীকারে কুন্ঠিত হয় না।

##ভাগ্য::-

তুলারাশির জাতকের ভাগ্যের মধ্যবয়সের কাছাকাছি সময়েই বিশেষ উন্নতি হয়। প্রথম বয়সে ভাগ্য সাধারণতঃ অনিশ্চিত থাকবে। ৩৯ থেকে ৪৫ বর্ষ সময়টি জাতক বিশেষ আনন্দে কাটায়। জাতকের অজানা কিছু থাকে না। শিক্ষক, উপদেষ্টা এবং সরকারী/বেসরকারী বা পৌর-প্রতিষ্ঠানের কাজে আর্থিক দিকে লাভবান হন। জ্যোতিষ ও তন্ত্রশাস্ত্রের চর্চায় জাতক বিশেষ কৃতিত্ব দেখাতে সক্ষম হন। কর্মক্ষেত্রে জাতকের তেমন শত্রু থাকে না বললেই চলে। পরিণত বয়সে ব্যবসায়ে বা চাকুরীতে অবস্থানুযায়ী প্রতিষ্ঠা অবশ্যই হয়ে থাকে।

###কর্মজীবন::-

কর্মজীবনে জাতক খুবই সংযত ও কর্তব্যপরায়ণ। কোনমতেই কোন কাজে গাফিলতি করে না। অধ্যবসায় ও নিষ্ঠা প্রবল বলে গবেষণামূলক কাজ, সংগঠনমূলক কাজ এবং পুস্তক,ঔষধপত্র ও যাত্রা থিয়েটারের সাজসরঞ্জাম,জুয়েলারী প্রভৃতি কাজে জাতক প্রতিষ্ঠা পাবে। কর্মজীবনে উন্নতিই হয় বেশীরভাগ ক্ষেত্রে।

##প্রেম, বিবাহ ও দাম্পত্যজীবন::-

বিবাহিত জীবন সুখের হয়। তীব্র বাসনা ও কামনা জাতককে বিশেষভাবে উত্তেজিত করে তোলে। স্ত্রী সুন্দরী ও বিদুষী হয়। দাম্পত্যজীবনে জাতক স্ত্রীকে একান্তভাবে পেতে চায়। নিবিড় প্রীতির সম্পর্কও যেমন থাকবে তেমনি মনকষাকষিও কম হবে না। বিবাহোত্তর জীবন জাতকের বিশেষ আনন্দমুখর হয়। স্ত্রীর প্রভাবে উন্নতির সক্ষম হয়। স্ত্রীর স্বাস্থ্য নিয়ে জাতককে বিশেষ কষ্ট পেতে হয়। কোন দূরারোগ্য ব্যাধির প্রকোপ থেকে স্ত্রীকে রক্ষা করা কঠিন হয়ে পড়ে। সন্তান সংখ্যা মাঝামাঝি হয়। মধ্যবয়সে হঠাৎ কোন স্ত্রীলোকের প্রতি জাতকের আকর্ষণ দেখা দেয়।

##বন্ধুভাগ্য::-

জাতকের লোক চেনার ক্ষমতা অপরিসীম। তীক্ষ্ণবুদ্ধি ও শাণিত দৃষ্টির প্রভাবে সহজেই প্রকৃত বন্ধুকে চিহ্নিত করতে সক্ষম হয়। বন্ধু খুব সীমিত হয়। বন্ধুরা স্বভাবতঃ প্রীতিপূর্ণ ও সহানুভূতিশীল হয়ে থাকে। বিদেশী কোন বন্ধুর দ্বারা জাতক বিশেষ উপকৃত হয়।

###স্বাস্থ্য::-

অত্যন্ত আরামপ্রিয়তা বিলাসিতা ও দীর্ঘসূত্রতার জন্য জাতকের স্বাস্থ্য বিঘ্নিত হয়ে পড়ে। ডায়াবেটিস,হজমের গন্ডগোল,বাত, পক্ষাঘাত, চক্ষুরোগ এবং মানসিক রোগে জাতক বিশেষভাবে ভুগবে। শর্করাজাতীয় খাদ্য একেবারেই বর্জন করা ভাল। তুলারাশির জাতকের স্বাস্থ্য সাধারণতঃ অটুট এবং সৌম্যদর্শন হয়। যোগ ব্যায়াম ও যোগ নিদ্রার অভ্যাস জাতকের স্বাস্থ্যোন্নতির পক্ষে অপরিহার্য। তাছাড়া সাত্ত্বিক আহারও প্রয়োজন। ৩৮ থেকে ৪৯ বর্ষ মধ্যে মুত্রাশয়ের পীড়া,বাত ও চক্ষুরোগ এবং হজমের গোলমালে বিশেষ কষ্ট পাবে।

##যোগ্যতা::-

গবেষণার কাজে,গণিত ও হিসাবশাস্ত্রে ও আধ্যাত্মিক সাধনায় জাতকের যোগ্যতা প্রকাশ পায়। ব্যবসায়েও জাতক আশানুরূপ যোগ্যতা দেখাতে সক্ষম হয়। জাতকের আত্মবিশ্বাস প্রবল বলে সহজেই যে কোন ব্যাপারে দক্ষতা দেখাতে ও লোককে চমৎকৃত করে দিতে পারে। ২৯ থেকে ৪৯ বর্ষ পর্যন্ত সময় বিশেষ উল্লেখযোগ্য। এই সময়েই জাতক প্রতিষ্ঠা অর্জনে সমর্থ হয় সাধারণত।

###তুলা রাশির বাৎসরিক শুভাশুভ:–

এই বছর তুলা রাশির জাতকদের জন্য খুব ভালো হয়ে উঠবে। আপনি আপনার ক্যারিয়ার, ব্যবসা, শিক্ষা এবং বিবাহের ক্ষেত্রে ভাল ফলাফল আশা করতে পারেন। প্রথম দিকে মঙ্গল আপনার দ্বিতীয় ঘরে অবস্থানের দরুন, আপনার অর্থব্যয় বেড়ে গেলেও আয়ও বেড়ে যাবে। অর্থ প্রবাহ সর্বদা অটুট থাকবে। আপনার পরিবারের জন্য যে কোনও ধরণের বিনিয়োগের জন্য এটা ভাল সময়। বছরের শুরুতে আপনার ও পরিবারের সকলের স্বাস্থ্য ভালো যাবে। অবশ্য আপনি মার্চ মাসে কিছু খারাপ জিনিস অনুভব করতে পারেন। সামগ্রিকভাবে, এই বছরটি আপনার স্বাস্থ্যের দৃষ্টিকোণে ভাল থাকবে। আপনি আপনার বর্তমান অবস্থান থেকে পদোন্নতি পেতে পারেন। আপনি আপনার সিনিয়র এবং অধস্তনদের সমর্থন পেতে পারেন বা একটি অনুমোদিত কাজের জণয় প্রশংসা পেতে পারেন। আপনার ভাগ্য সারা বছর আপনার পক্ষে হবে।
আপনার ষষ্ঠ ঘরে ষষ্ঠপতি থাকার কারণে শিক্ষার্থীরা এই বছরটি বিশেষত জানুয়ারী মাসে পছন্দসই ফলাফল পাবে যা সারা বছর ধরে শনির বিশেষ প্রভাব দ্বারা প্রত্যাশিত হবে। বছরটি শিক্ষার্থীদের জন্য অনুকূল। আপনার পারিবারিক জীবন ভাল না ও যেতে পারে। বছরের মাঝামাঝি সময়কালে, আপনার পরিবারে মাঙ্গলিক কার্য হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
এই বছরের রাশিফল অনুসারে প্রাথমিক মাসগুলি প্রেম এবং রোম্যান্সের পক্ষে অনুকূল। আপনি এবং আপনার স্ত্রী একে অপরের প্রতি আবেগ প্রদর্শন করবেন এবং সদ্য বিবাহিত দম্পতিরা সন্তানের জন্ম বা গর্ভাবস্থা আশা করতে পারেন। যারা অবিবাহিত রয়েছেন ও যারা জীবনসঙ্গীর সাহচর্য খুঁজছেন, এই বছর তাদের সঙ্গী খুঁজে পেতে পারেন। আপনি অনেক সময় নিজেকে নিরাপত্তাহীন বোধ করতে পারেন তবে বেশিরভাগ সময় আপনি আপনার সঙ্গীর সাথে একটি সুন্দর বন্ধন উপভোগ করবেন।



আমাদের ফেসবুক পেইজ