রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ০৭:৪২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ফটিকছড়ি উত্তর জুজখোলা শ্রী শ্রী কালী ও দুর্গা মন্দিরের স্থায়ী কমিটি গঠন। ধামরাইয়ে রক্ত জবা তরুণ সংঘের উদ্যোগে ধর্মীয় উপসনালয় ও অঙ্গন পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম গ্রহন। সনাতন ধর্মের ভগবান-কে নিয়ে ফেইসবুকে আপত্তিকর মন্তব্য করায় মামলা দায়ের । প্রবর্তক সংঘের বিরুদ্ধে আবারো মামলা ঠুকছে ইসকন। আদালতের সমন জারি। (ইসকন) ‘জঙ্গি সংগঠন’ হিসেবে আখ্যায়িত ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনে মামলা দায়ের। প্রবর্তক সংঘের আবাসিক হোস্টেলে ছাত্রীর আত্মহত্যা কুড়িগ্রামে প্রাচিন গো-মূর্তি উদ্ধার, পুলিশ সুপারের সংবাদ সম্মেলন একেরপর এক মন্দির চুরির ঘটনা আনোয়ারা দক্ষিণ শোলকাটা গ্রামে ধরা ছোঁয়ার বাইরে অপরাধীরা ওসি প্রদীপ নির্দোষ”সত‍্য উন্মোচনের দাবি সিনিয়র আইনজীবী এ‍্যাড: রানা দাসগুপ্ত রক্ষাকালী মন্দির ও রাস্তাঘাট উন্নয়নে নবনীত পৌর মেয়রের সাথে মতবিনিময়

নরেন্দ্র মোদির ঢাকা সফর নিয়ে হেফাজত আমিরের হুঁশিয়ারি

Spread the love

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বিশ্বের মুসলমানদের কাছে ক্ষমা না চাওয়া পর্যন্ত বাংলাদেশে আসতে পারবে না বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমির আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী।

সোমবার ১৫ মার্চ বিকেলে সুনামগঞ্জের দিরাই পৌর এলাকার স্টেডিয়াম মাঠে শানে রিসালাত সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ হুঁশিয়ারি দেন।আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী বলেন, নরেন্দ্র মোদি বাংলাদেশে আসতে পারবে না। মোদি ইসলাম ধর্মকে ধ্বংস করতে চায়। তাই আজকে লক্ষাধিক মানুষের সামনে বলে দিতে চাই, যেকোনো কারণবশত যদি মোদি বাংলাদেশে আসার চেষ্টা করে তাহলে দেশের ১৬ কোটি মুসলমান চুপ করে বসে থাকবে না। কাপনের কাপড় নিয়ে শাপলা চত্বরে কঠোর আন্দোলন কর্মসূচির ঘোষণা করবো।

তিনি বলেন, যারা ইসলামের বিরোধিতা করে তারা স্বাধীনতারও বিরোধিতা করে। এরা শুধু ইসলামের শত্রু না, এরা স্বাধীনতারও শত্রু।বক্তব্যে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ঢাকা সফর প্রসঙ্গ টেনে এনে হেফাজতে ইসলামের আমির আরও বলেন, ওই কসাই মোদি গুজরাটে, আহমেদাবাদে মুসলমানদের কচু আর গাজরের মতো কচুকাটা করেছে। এমনকি ভারতের অনেক প্রাচীন মসজিদকে ভেঙে ফেলেছে। মোদি যদি সারা বিশ্বের মুসলমানদের কাছে ক্ষমা না চায় তাহলে মোদি কোনোদিনো বাংলাদেশে আসতে পারবে না।

তিনি বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশসহ সারাবিশ্বে ইসলামকে নির্মূল করার জন্য একটি কুচক্রী মহল উঠেপড়ে লেগেছে। আমরা তাদেরকে বলে দিতে চাই, যারা ইসলামকে ধংস করতে চায়, নির্মূল করতে চায় তারাই ধংস হয়ে যাবে।হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম-মহাসচিব আল্লামা মামুনুল হক বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা আর ইসলাম একটার সঙ্গে আরেকটা জড়িয়ে আছে।

বাংলাদেশে ইসলাম বিপন্ন হলে স্বাধীনতা বিপন্ন হবে। বাংলাদেশে যারাই ইসলাম এমনকি আমাদের প্রিয় নবিকে নিয়ে কটূক্তি করবেন তাদের জন্য সংসদে সর্বোচ্চ আইন মৃত্যুদণ্ড করতে হবে।সম্মেলনে আরও বক্তব্য রাখেন হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় কমিটির নায়েবে আমির আল্লামা নুরুল ইসলাম খান, সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব জুনাইদ আল-হাবিব, যুগ্ম-মহাসচিব আল্লামা মামুনুল হক, নাছির উদ্দিন মুনিরসহ হেফাজতের কেন্দ্রীয় নেতারা।



আমাদের ফেসবুক পেইজ