সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ০৬:৩২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
নড়াইলে অবসরপ্রাপ্ত কলেজে  শিক্ষক হত্যার ঘটনায় কেয়ারটেকার সহ ৪ জনকে আটক নড়াইলে অষ্টমী ও কুমারী পূজাঁ অনুষ্ঠিত বাগীশিক চট্রগ্রাম মহানগর সংসদ এর উদ্যােগে শারদীয় দূর্গা পূজা উপলক্ষ্য বস্ত্র বিতরণ, সেলাই মেশিন প্রদান ও নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী বিতরণ অনুষ্টিত নড়াইলের পল্লীতে হিন্দু কলেজ শিক্ষককে গলা কেটে হত্যা! প্রিয় চট্টলাবাসীকে শারদীয়া দুর্গা পূজার শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন শ্রী রাজীব তালুকদার বাংলাদেশ গীতা শিক্ষা কমিটি (বাগীশিক)-চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা সংসদের উদ্যোগে অনাথদের নিয়ে শারদোৎসব পালিত বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট-চট্টগ্রাম মহানগরের আহবায়ক কমিটি অনুমোদিত বোয়ালমারীতে প্রতিমা ভাংচুর, গ্রেফতার নয়ন শেখ ও রাজু শেখ মৃণাল কান্তি বসু ও দিপক কান্তি বসুর পূর্বপুরুষরা জমিদার ছিলেন লাখাইয়ে পুজা উদযাপন পরিষদ কতৃক বস্তু বিতরণ

বিশ্ব বিখ‍্যাত শিল্পপতি অম্বরিশ সুখশান্তির খোঁজে সনাতন ধর্মগ্রহন করে হয়ে উঠলেন কৃষ্ণ ভক্ত

বিশ্ব বিখ‍্যাত শিল্পপতি সুখশান্তির খোঁজে সনাতন ধর্মগ্রহন করে হয়ে উঠলেন কৃষ্ণ ভক্ত

সুজন চক্রবর্তী, (ভারত) প্রতিনিধি : পশ্চিম বঙ্গের নদীয়া জেলার মায়াপুর ১১৩ মিটার সুউঁচু বিশাল কৃষ্ণ মন্দির তৈরি হচ্ছে আগামী ২ বছরের মধ‍্যেই সম্পূর্ণ হয়ে যাবে।শ্রী মায়াপুর চন্দ্রোদয় নামের এই মন্দিরের নিমার্ণ কৃষ্ণ ভক্ত অম্বরিশ দাস করাচ্ছেন।

প্রার্থনা অবস্থাতে অম্বরিশ দাস

যিনি আগে আলফ্রেড ফোর্ড নামে পরিচিত ছিলেন।আর উনি বিশ্ব বিখ্যাত ফোর্ড গাড়ী কোম্পানির মালিক।কৃষ্ণের প্রতি আলফ্রেডের এই আর্কষনীয় কাহিনীতে মায়া ও রয়েছে,আর এই মায়ার কারনে মায়াপতি শ্রীক‍ৃষ্ণ এর মায়াপুরে নিমির্ত শ্রী মায়াপুর বৈদিক তারামন্ডল চন্দ্রদয় মন্দিরের সাথে যুক্ত হন তিনি। আলফ্রেড থেকে অম্বরিশ হওয়া এই কৃষ্ণ ভক্তের ভক্তির এই অনুপ্রেরনামূলক যাত্রা নিরবচ্ছিন্নভাবে চলছে।

প্রার্থনা অবস্থাতে অম্বরিশ দাস

মন্দিরের ১টি অংশের এক লক্ষ বর্গফুট এলাকায় তৈরি হচ্ছে।এই মন্দির ২০২২ এর মধ‍্যে সর্বসাধারনের জন‍্য খুলে দেওয়া হবে।অম্বরিশ দাস জানান, কৃষ্ণ ভক্তিই ওনাকে আসল মানুষ বানিয়েছে। জন্মের পর তিনি সমস্ত বস্তগত আনন্দ এবং মায়ায় লিপ্ত ছিলেন।তিনি জানান, আমার কাছে সবকিছু ছিল, কিন্তু তাও মনে হত কিছুই নেই।তখন থেকে আমি আমার একাকিত্বর কারন খোঁজার কাজে লাগি।

এরপর আমার শ্রীল প্রভুপাদের সাথে দেখা হয়।তারপর থেকেই আমি আমার জীবনের সেই একাকিত্ব কাটিয়ে উঠি কৃষ্ণ ভক্তির মধ‍্য দিয়ে।উনি জানান, এই মন্দিরকে সুম্পূর্ন করে ওনার চরনে সমপিত করাই আমার প্রধান লক্ষ‍্য।উনি মায়াপুরে এই বিখ‍্যাত চন্দ্রোদয় মন্দির বানানোর জন‍্য ২৫০ কোটি টাকা দান করেছেন।আর বাকি টাকা চাঁদার মাধ্যমে যোগার করা হচ্ছে।



আমাদের ফেসবুক পেইজ