শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৩:৫৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
তীর্থ পরিক্রমা ও দিনব্যাপী আড্ডায় সনাতনী এসএসসি ৯৯ মৌলভীবাজারে গীতা দান কর্মসূচি বোয়ালখালী শ্রীশ্রী বাবা লোকনাথ ব্রক্ষচারী নবনির্মিত শ্রী মন্দিরের ১২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উৎসব উপলক্ষে মহানামযজ্ঞ অনুষ্ঠিত হয়েছে। পাহাড়ের চূড়ায় মা কালীর ভক্তদের দীর্ঘ লাইন লামা কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লিমিটেডের বিজয়ী সভাপতি বাসু দাশ,সেক্রেটারী বিপুল নাথ গুইমারাতে বার্ষিক গীতা ও নৈতিক শিক্ষা পরীক্ষা অনুষ্ঠিত রাউজান কদলপুর স্কুল এন্ড কলেজে সনাতনী শিক্ষার্থীদের “শ্রীমদ্ভগবদগীতা যথাযথ” দান চকরিয়া সরকারি কলেজে ৫৬ বছর পর প্রথম বাণী অর্চ্চনা পরিষদ গঠন ও সরস্বতী পুজোর প্রস্তুতি চলছে মৌলভীবাজার জেলা সনাতনী বৈদিক বিদ্যালয়ের অনুমোদন কুড়িগ্রাম ফুলবাড়িতে অসহায় সংখ্যালঘু হিন্দু পরিবারের জমি দখলের অভিযোগ

সরকারি খরচে ১৩০০ মুসলিম দম্পতির বিয়ে দিলেন যোগী আদিত্যনাথ

Spread the love

সুজন চক্রবর্তী, আসাম( ভারত) প্রতিনিধিঃ ভারতের উত্তরপ্রদেশের মুসলিমদের মন জয় করতে নতুন পন্থা নিলেন মুখ‍্যমন্ত্রী যোগী আদিত‍্য নাথ। এবার সরকারি খরচে সংখ‍্যালঘু ব‍্যক্তিদের বিয়ের ব‍্যবস্থা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। রাজ‍্য বাজেট থেকে প্রায় ৬০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে এই খাতে। চলিত অর্থ বর্ষে অন্তত ১৩০০ মুসলিম দম্পতির বিয়ে দেওয়া হয়েছে এই প্রকল্পের আওতায়। মুসলিম দম্পতির বিয়ে দেওয়ার জন‍্য আলাদা করে কমিটি ও গঠন করা হয়েছে যোগী সরকারের তরফে। যেসব দম্পতিরা বিয়ে করতে ইচ্ছুক তাঁরা সরকারের কাছে আবেদন জানাচ্ছেন।

 

তাঁদের আবেদন খতিয়ে দেখে সরকারের তরফে বিয়ের জন‍্য আর্থিক সাহায্য করা হচ্ছে। প্রতিটি বিয়ের জন‍্য ৫১ হাজার টাকা করে বরাদ্দ করেছে যোগী সরকার। জানা যায়, প্রথমে বিয়ের কনের ব‍্যাংক অ‍্যাকাউন্টে ৩৫ হাজার টাকা পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে সরকারের তরফে। তারপরে বিয়ের জন‍্য প্রয়োজনীয় সমস্ত জিনিসপত্র কিনে তুলে দেওয়া হচ্ছে কনের হাতে। পাত্রের হাতে কোনও টাকা দেওয়া হচ্ছে না। আরো জানা যায়, আগে নানা সরকারি দপ্তরের উদ‍্যোগে গণবিবাহের অনুষ্ঠান করানো হত। আর্থিকভাবে পিছিয়ে থাকা ও সংখ‍্যালঘু সম্প্রদায়ের অনেকেই সেখানে বিয়ে করতেন।

 

কিন্তু এখন সমাজকল‍্যাণ দপ্তরের আওতায় আনা হয়েছে যোগী সরকারের এই প্রকল্পটিকে আর্থিকভাবে দুর্বল, তফসিলি জাতিভুক্ত বা সংখালঘু সম্প্রদায় সকলকেই এই প্রকল্পের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। চলিত অর্থবর্ষে এই প্রকল্পের জন্য উত্তরপ্রদেশের বাজেটে ৬০০ কোটিটাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। উত্তরপ্রদেশের সরকারি আধিকারিকরা জানিয়েছেন, চলিত অর্থ বর্ষে এই প্রকল্পের আওতায় মোট ১৬ হাজার দম্পিতর বিয়ে দেওয়া হয়েছে। তার মধ্যে রয়েছে ১৩০০ জন মুসলিম দম্পতি।

 

প্রায় ৯ হাজার দলিত দম্পতিকে ও সরকারি উদ‍্যোগে বিয়ে দেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যেই বরাদ্দ থেকে ৮১কোটি টাকা খরচ হয়েছে বলে জানা গেছে। সামনেই বিয়ের মরশুম শুরু হচ্ছে। ইতিমধ্যেই বিয়ের আবেদন জমা পড়তে শুরু করেছে সরকারের কাছে। আধিকারিকরা আশাবাদী,ব‍্যাপক সংখ‍্যায় দম্পতিরা এই প্রকল্পের সুযোগ নেবেন।



আমাদের ফেসবুক পেইজ